ভারতীয় বংশোদ্ভূত ডাক্তার ও তাঁর রিসার্চ দল আবিষ্কার করলেন ব্রেন ক্যান্সারের ওষুধ।।

Last modified date

Comments: 0

brain cancer

ওহিও,আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র – ক্যান্সার নিরাময়ের চিকিৎসা বা ওষুধ আবিষ্কার আধুনিক বিশ্বের চিকিৎসা বিজ্ঞানের কাছে সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ । মানব শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের ক্যান্সারের মধ্যে সবথেকে বিপদজনক হল ব্রেন টিউমার। কারণ গত ৫ বছরের সমীক্ষায় দেখা গেছে , ব্রেন টিউমারে আক্রান্তদের মধ্যে মাত্র ১০% বেঁচে যান।

একজন ভারতীয় বংশোদ্ভূত ডাক্তার ও তাঁর অধীনে থাকা একদল ছাত্র ব্রেন টিউমারের চিকিৎসা খুঁজে পেয়েছেন যা কিনা ব্রেন টিউমারের আক্রান্ত রোগীদের ১০০% সুস্থ করাবে।

ওহিও-র ‘University of Findlay college of Pharmacy’ একদল ছাত্র এমন একধরনের রাসায়নিক যৌগ তৈরি করেছেন যা ব্রেন কান্সারের নিরাময়ের ক্ষেত্রে খুব উপকারী। ডঃ রাহুল খুপ্সের মতে “এই যৌগের আবিষ্কার কেবল মস্তিস্ক বা মস্তিস্কের ক্যান্সার থেকে মুক্তি দেয় না, এমনকি মস্তিস্কের স্বাভাবিক কোষ গুলিকে কান্সারের জীবাণুর আক্রমন থেকে মুক্ত করে। এই রাসায়নিক যৌগ আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ”। ডঃ রাহুল খুপ্সে হলেন ‘University of Findlay college of Pharmacy’ -র ঔষধি রসায়নের অধ্যক্ষ।

ওই ছাত্রদল গ্লিওব্লাস্টোমার (Glioblastoma) ওপর পরীক্ষা নিরীক্ষা করছেন। এই গ্লিওব্লাস্টোমার (Glioblastoma) হল ব্রেন কান্সারের একটি আক্রমনাত্মক ও অভিযোজিত রূপ যার আমাদের তথাকথিত ক্যান্সার চিকিৎসার মাধ্যমে নিরাময় হয় না কারণ এর সাহায্যে ব্রেন ক্যান্সারের ক্ষতিকারক জীবাণু গুলিকে সরানো যায় না।

এই রিসার্চ দল সেই রাসায়নিক যৌগ তৈরি করেছে যা গ্লিওব্লাস্টোমার (Glioblastoma) ক্ষতিকারক জীবাণু গুলিকেও ধ্বংস করতে পারে। এই যৌগগুলির মধ্যে RK-15 সবচেয়ে ফলপ্রসূ। জেকব রেজের ( রিসার্চ টীমের একজন সদস্য) মতে RK-15 এতোটাই শক্তিশালী যে তা স্বাভাবিক কোষগুলির কোনরকম প্রভাব না ফেলে কেবল ক্ষতিগ্রস্থ কোষ গুলিকেই আক্রমন করছে।

এই রাসায়নিক যৌগটির প্রথমে অন্য প্রাণীদের ওপরে প্রয়োগ করা হবে। যদি এই পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফল আশানুরূপ হয় তাহলে জীবন বাঁচানোর কাজে তা খুব শীঘ্রই বাজারে আনা হবে ।

আরও পড়ুনঃ আর ৩০ বছরের মধ্যে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে সমুদ্রের তলদেশে থাকা টাইটানিকের ( Titanic ) অবশেষ

Guest

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Post comment